HomeNIDWNIDW Account Registration Process - NID একাউন্ট রেজিস্টার করার নিয়ম

NIDW Account Registration Process – NID একাউন্ট রেজিস্টার করার নিয়ম

5/5 - (183 votes)

NID একাউন্ট রেজিস্টার করার নিয়ম অথবা NIDW Account Registration Process সম্পর্কে আজকের এই আর্টিকেলে সঠিক গাইডলাইন দিয়েছি। আপনারা সকলেই জানেন এনআইডি কার্ড সম্পর্কিত সকল ধরনের সেবা পেতে অবশ্যই আপনাকে বাংলাদেশ জাতীয় নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট তথা Nidw তে অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে। 

জাতীয় পরিচয় পত্র কিংবা ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড এবং ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন এ ধরনের যাবতীয় কার্যক্রম বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের (Nidw) অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে সম্পাদন করা হয়। 

তাই আপনি যদি আপনার এন আইডি কার্ডের কোন তথ্যের পরিবর্তন আনতে চান অথবা এনআইডি কার্ডের কোন তথ্য জানতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে ( NID Card Registration)  অর্থাৎ ভোটার আইডি একাউন্ট রেজিষ্ট্রেশন করে নিতে হবে।

আমরা পূর্ববর্তী আর্টিকেলে দেখিয়েছি ফরম নাম্বার দিয়ে এনআইডি কার্ড এর তথ্য যাচাই এবং  এনআইডি কার্ড ডাউনলোড, এনআইডি কার্ড হারিয়ে গেলে রি-ইসুর জন্য আবেদন প্রক্রিয়া, সেই সাথে এনআইডি কার্ডের সাথে সম্পর্কিত সকল তথ্য ও সেবা পাওয়ার জন্য Nidw ওয়েবসাইটে অ্যাকাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে।

NIDW Account Registration

অনেকের কাছে Nidw ওয়েবসাইটে অ্যাকাউন্ট রেজিস্ট্রেশন এবং একাউন্ট লগইন করা অনেক ঝামেলার একটি কাজ মনে হলেও আজকের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে পড়লে মাত্র ২ মিনিটের মধ্যেই আপনি Nidw ওয়েবসাইটে NID Card Registration অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন। 

বিশেষ দ্রষ্টব্য: Nidw ওয়েবসাই একাউন্ট রেজিস্টার করার জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয় সম্পর্কে পূর্ব থেকেই আপনাকে জানতে হবে এবং তা সংগ্রহ করে রাখতে হবে। যে জিনিসগুলো NID একাউন্ট রেজিস্টার করার জন্য প্রয়োজন হবে তা সম্পর্কে নিচে আলোচনা করা হলো।

Nid একাউন্ট রেজিস্টার করার জন্য কি কি প্রয়োজন?

আমরা সকলেই জানি যেকোনো ধরনের ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন করতে গেলে অবশ্যই সেখানে ভেরিফিকেশন অপশন থাকে তাই রেজিস্ট্রেশন ভেরিফিকেশনের জন্য যে সকল ইকুইপমেন্ট প্রয়োজন তা সংগ্রহ করতে হবে। অর্থাৎ অন্যান্য ওয়েবসাইটের ন্যায় বাংলাদেশ জাতীয় নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট অর্থাৎ Nidw ওয়েবসাইটে অ্যাকাউন্ট রেজিস্টার করার সময় প্রয়োজনীয় তথ্যাদি প্রমাণের জন্য ভেরিফিকেশনের প্রয়োজন হবে। তাই এনআইডি অ্যাকাউন্ট রেজিস্টার করার করার জন্য যে সকল জিনিস প্রয়োজন তা নিচে দেখুন।

যেহেতু এনআইডি অ্যাকাউন্ট রেজিস্টার করার জন্য দুইটি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হয় তাই সে ক্ষেত্রে যদি আপনি এক্সপার্ট লেভেলে কেউ না হন তাহলে আপনি ১ এর অধিক ডিভাইস ব্যবহার করতে পারেন। অর্থাৎ একটি ডিভাইস দিয়ে আপনি প্রথমে নতুন একাউন্ট তৈরি করার জন্য আবেদন করবেন এবং দ্বিতীয় ডিভাইস দিয়ে আপনি ব্যক্তির ফেস ভেরিফিকেশন করবেন।

আর যদি আপনি আইডি রিলেটেড বিষয়ে এক্সপার্ট হয়ে থাকেন তাহলে আপনি একটি ডিভাইস দিয়ে একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন এবং ভেরিফিকেশন করতে পারবেন।

  • সর্বপ্রথম আপনাকে Nidw ওয়েবসাইটে নিবন্ধিত ব্যক্তির ফেইস ভেরিফিকেশন এর জন্য একটি এন্ড্রয়েড স্মার্টফোন এবং পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য আরেকটি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন অথবা কম্পিউটার দরকার হবে।
  • অবশ্যই ডিভাইস গুলোতে ভালো কোয়ালিটির ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে।
  • পরবর্তীতে একটি সচল কিংবা একটিভ মোবাইল নাম্বার অথবা ভোটার নিবন্ধনের সময় যেই নাম্বারটি প্রদান করেছিলেন সেটি সাথে থাকতে হবে (আপনি চাইলে এ ক্ষেত্রে নাম্বার পরিবর্তন করতে পারবেন)। 
  • নিবন্ধিত ব্যক্তির জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার অথবা নিবন্ধিত ভোটার স্লিপ নাম্বার দরকার হবে। নিবন্ধিত ব্যক্তির উক্ত এনআইডি কার্ডে দেয়া জন্মতারিখ জানা থাকতে হবে।
  • নিবন্ধিত ব্যক্তির এনআইডি কার্ডের তথ্য অনুযায়ী বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা জানা থাকতে হবে।

NID একাউন্ট রেজিষ্ট্রেশন পদ্ধতি সমূহ

আপনি যদি এনআইডি একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে চান তাহলে আপনাকে সর্বপ্রথম NID একাউন্ট রেজিষ্ট্রেশন করার জন্য বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট (services.nidw.gov.bd) প্রবেশ করতে হবে। এবং জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার ও জন্ম তারিখ, স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা দিয়ে রেজিস্টার করতে হবে।

ধাপে ধাপে সমস্ত কাজ কমপ্লিট হয়ে গেলে একটি সচল মোবাইল নাম্বার সাবমিট করে সেখানে ওটিপি কোড বসিয়ে মোবাইল নম্বরটি অ্যাক্টিভ করে নিতে হবে এবং ফেইস ভেরিফিকেশন এর মাধ্যমে আপনার একাউন্টটি চালু করতে হবে।

NID Card Registration

আমি পূর্বেই বলেছি অনেকে মনে করে Nidw ওয়েব সাইটে একাউন্ট রেজিস্টার করা খুবই কঠিন এবং ঝামেলার একটি কাজ। কিন্তু বিষয়টি মোটেও এতটা কঠিন এবং ঝামেলা নয়। 

আজকের এ আর্টিকেলে এনআইডি রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কিত বিষয়গুলো মনোযোগ দিয়ে পড়লে এবং আর্টিকেলে ইমেজ গুলো দেখলে শুধুমাত্র ২ মিনিটে আপনি আপনি এনআইডি একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। সকলের সুবিধার জন্য Nidw একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া স্টেপ বাই স্টেপ দেখানো হলো।

Nidw ওয়েবসাইটে অ্যাকাউন্ট তৈরি করুন

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের জাতীয় পরিচয় পত্রের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে অ্যাকাউন্ট তৈরি করার জন্য সর্বপ্রথম https://services.nidw.gov.bd/nid-pub এখানে গিয়ে (আপনার যদি জাতীয় পরিচয় পত্র থাকে) এবং যদি শুধুমাত্র একাউন্ট না থাকে তাহলে আপনি রেজিস্টার বাটনে ক্লিক করুন। 

এনআইডি একাউন্ট রেজিস্টার

খুব ভালো করে লক্ষ্য করুন, এ পর্যায়ে “রেজিস্টার করুন” বাটনে ক্লিক করার পর নিচে দেয়া ছবির মত ওয়েবপেজের ইন্টারফেস দেখতে পারবেন, সেখানে নিবন্ধিত ব্যক্তি অথবা যদি আপনি আপনার আইডি কার্ড এর জন্য একাউন্ট করতে চান তাহলে আইডি কার্ডের নাম্বার অথবা ফরম নাম্বার সাবমিট করুন।

এনআইডি একাউন্ট রেজিস্টার
এনআইডি একাউন্ট রেজিস্টার

জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার অথবা ফর্ম নাম্বার দেবার পর নিবন্ধিত ভোটার আইডি কার্ড এর তথ্য অনুযায়ী সঠিক জন্ম তারিখ (দিন, মাস, বছর) ফরমেটে সাবমিট করুন। তারপর ছবিতে প্রদর্শিত ক্যাপচা কোডটি নিচের ফাকা ফর্মে লিখে দিয়ে “সাবমিট” বাটনে ক্লিক করুন।

রেজিস্ট্রেশনে বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা প্রদান

রেজিস্ট্রেশনের জন্য সাবমিট বাটনে ক্লিক করার পরে নিবন্ধিত ব্যক্তির এনআইডি কার্ডের তথ্য অনুযায়ী বর্তমান এবং স্থায়ী ঠিকানা সিলেট করতে হবে। যদি আপনি নতুন নিবন্ধিত ভোটার হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনি এখনো ভোটার আইডি কার্ড হাতে পাননি এটি স্বাভাবিক।

তবে সেক্ষেত্রে আপনাকে ভোটার নিবন্ধিত হওয়ার পরে যে ফিঙ্গারপ্রিন্ট দিয়েছিলেন তখন আপনাকে একটি স্লিপ অথবা ফ্রম নম্বর দেয়া হয়েছিল আপনি চাইলে সেটি এখানে সাবমিট করতে পারেন। যখন নিবন্ধনের জন্য আবেদন করেছিলেন তখন যে বর্ধমান ও স্থায়ী ঠিকানা দিয়েছিলেন সেই বর্তমান ঠিকানা এবং স্থায়ী ঠিকানা এখানে সিলেক্ট করে দিবেন।

NIDW Account Registration
NIDW Account Registration

নিবন্ধিত ব্যক্তির বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা নির্বাচন করার ক্ষেত্রে শুধুমাত্র বিভাগ, জেলা ও উপজেলা সিলেট করতে হবে। 

বিশেষ দ্রষ্টব্য: এ সকল তথ্য প্রদানের ক্ষেত্রে পরপর যদি ৩বার এর বেশি ভুল তথ্য প্রদান করেন তাহলে যে এনআইডি কার্ডের জন্য এনআইডি account register করতে চাচ্ছেন তা কিন্তু Nidw ওয়েবসাইট থেকে সেই এনআইডি অ্যাকাউন্টটি লক করে দিবে।

আর এ কারণেই বর্তমান এবং স্থায়ী ঠিকানা প্রদানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করুন যাতে করে কোন কারনে ভুল না হয়। বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা সঠিকভাবে দিয়েছেন কিনা তা চেক করুন এবং সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে“পরবর্তী” বাটনে ক্লিক করুন।

NIDW মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশন

পূর্ববর্তী স্টেপে বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা সঠিকভাবে সাবমিট করার পর নিচে দেয়া ছবির মত ওয়েবসাইটের ইন্টারফেস দেখতে পারবেন, এ পর্যায়ে নিবন্ধিত ব্যক্তির মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশন করতে হবে। এনআইডি অ্যাকাউন্ট রেজিস্টার ব্যক্তি যখন নিবন্ধিত হয়েছেন তখন তিনি একটি নাম্বার প্রদান করেছিলেন সেটি এখানে দেখা যাবে। সেই নাম্বারে একটি ওটিপি কোড যাবে তাই নাম্বারটি সাথে রাখতে হবে অন্যথায় যদি নাম্বার না থাকে তাহলে নতুন একটি নাম্বার যোগ করা যাবে।

NIDW মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশন
NIDW মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশন

নিবন্ধনের সময় দেয়া নাম্বার যদি হারিয়ে যায় অথবা যদি কোন নাম্বার বসানো না থাকে তাহলে নতুন একটি একটিভ মোবাইল নাম্বার দিয়ে “বার্তা পাঠান” বাটনে ক্লিক করুন। একটু অপেক্ষা করলেই উক্ত মোবাইল নাম্বারে BD Nid service থেকে ৬ ডিজিটের একটি OTP কোড চলে আসবে।

সেই ৬ ডিজিটের OTP কোডটি “যাচাই করন পিন ভেরিফিকেশ” এর ফাঁকা জায়গায়  বসিয়ে “বহাল” নামক বাটনে ক্লিক করুন।

Google Play Store থেকে Nid Wallet অ্যাপস ডাউনলোড 

এরপরে মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশন হয়ে গেলে আর্টিকেলের এই সেকশনের নিচে দেয়া ছবির মত ওয়েবসাইটের নতুন একটি ইন্টারফেস দেখতে পারবেন, সেখানে একটি QR কোড প্রদর্শিত হবে।

NID একাউন্ট রেজিস্টার
NID একাউন্ট রেজিস্টার

এ পর্যায়ে নিবন্ধনকৃত ব্যক্তির ফেইস ভেরিফিকেশন করতে হবে। আবেদনকারী ব্যক্তির ফেইস ভেরিফিকেশন এর জন্য গুগল প্লে-স্টোর থেকে Nid Wallet অ্যাপসটি ডাউনলোড করে ইন্সটল করে নিতে হবে।

গুগল প্লে-স্টোর থেকে Nid Wallet অ্যাপসটি ইনস্টল হয়ে গেলে  সর্বপ্রথম পূর্ববর্তী ডিভাইসে প্রদর্শিত QR কোডটি স্ক্যান করুন।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: খেয়াল করবেন এই অ্যাপ্লিকেশনটি এমন একটি মোবাইল অথবা ডিভাইজে ইন্সটল করবেন যে ডিভাইসের ক্যামেরা স্বচ্ছ অথবা ক্লিয়ার। কেননা যেহেতু আবেদনকারীর ফেইস ভেরিফিকেশন করতে হবে তাই যদি তার ফেইস ভেরিফিকেশন করতে ক্যামেরা আইডেন্টিফাই করতে না পারে তাহলে এখানে ভেরিফিকেশন হবে না।

NID Face Verification করুন

QR কোডটি স্ক্যান স্ক্যান করা হয়ে গেলে ফেইস ভেরিফিকেশন করার জন্য Start Face Scan বাটনে ক্লিক করলে অটোমেটিক ক্যামেরা ওপেন হয়ে যাবে। এরপর প্রথমে সোজাসুজি হয়ে ক্যামেরার দিকে মুখমণ্ডল রেখে ছবি তুলুন, এরপরে একবার ডান দিকে ও একবার বামদিকে মুখমন্ডল সরাবেন। যদি আপনি সঠিক ভাবে ফেস ভেরিফিকেশনের জন্য মুখমন্ডল স্ক্যান করতে সক্ষম হন তাহলে একটি গ্রীন টিক মার্ক দেখতে পারবেন।

NID Face Verification করুন
NID Face Verification করুন (photo from nid wallet )

NIDW পাসওয়ার্ড সেট করুন

পরবর্তী যেকোনো প্রয়োজনে Nidw একাউন্টে প্রবেশ করে এনআইডি কার্ড সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য পেতে পাসওয়ার্ড সেট করে তা সংরক্ষণ করুন। কেননা পাসওয়ার্ড সেটাপ করে যদি তা অন্য কোথাও লিখে না রাখেন অথবা মনের না রাখেন তাহলে পরবর্তীতে Nidw একাউন্টে প্রবেশ করতে হলে নতুন করে মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশন, Face Verification করতে হবে। আর তাই এত সকল ঝামেলা এড়াতে অবশ্যই নতুন একটি পাসওয়ার্ড সেট করুন এবং তা অন্য কোথাও লিখে রাখুন। 

  • নতুন একটি পাসওয়ার্ড দেওয়ার জন্য “সেট পাসওয়ার্ড” বাটনে ক্লিক করুন।
  • এরপরে অক্ষর ও সংখ্যা মিলিয়ে সর্বনিম্ন ৮ ডিজিটের একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড সেট করুন।

আমি আবারও বলছি পরবর্তীতে এনআইডি কার্ড সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য পেতে এবং এনআইডি কার্ড ডাউনলোড করতে অবশ্যই আপনাকে এই একাউন্টে লগইন করার প্রয়োজন হতে পারে। তাই লগইন এবং রেজিস্ট্রেশন করার সময় যে পাসওয়ার্ডটি আপনি দিলেন তা অবশ্যই মনে রাখুন অথবা অন্য কোথাও লিখে রাখুন যা আপনাকে পরবর্তী লগইন করতে কাজে দিবে।

NIDW Account Registration Process
NIDW Account Registration Process

সবশেষে কনগ্রাচুলেশন! আপনি সফলভাবে আপনার Nidw একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে সফল হয়েছেন। এরপর থেকে আপনার যতই পরিচয় পত্র অথবা এন আই ডি কার্ড সম্পর্কিত সকল সেবা এই ওয়েবসাইট থেকে সফলভাবে নিতে পারবেন।

Homepage shobarjobs.com
Category NIDW
Last Update Just Now
Written by Ashraful Islam

উপসংহার

আমি আজকের এই আর্টিকেলে “NID একাউন্ট রেজিস্টার করার নিয়ম” সম্পর্কে সঠিকভাবে বিস্তারিত গাইডলাইন দেয়ার চেষ্টা করেছি। এনআইডি কার্ড একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কিত যদি আরো কোন নতুন কোন আর্টিকেল চান তাহলে, অবশ্যই কমেন্ট সেকশনে জানাতে পারেন। এছাড়াও এনআইডি তথা ভোটার আইডি কার্ড সংক্রান্ত যদি আরো কোন প্রশ্ন করতে চান তাহলে কমেন্ট সেকশনে আপনি মন্তব্য করুন। আপনার মন্তব্যের উত্তর দেয়ার জন্য আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা করব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Updated

Recent