HomeFreelancingওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার হয়ে ঘরে বসে আয় করুন-Wordpress Developer 2024

ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার হয়ে ঘরে বসে আয় করুন-WordPress Developer 2024

5/5 - (133 votes)

বর্তমান তথ্যপ্রযুক্তির পৃথিবীতে অনলাইনে আয় করার জন্য কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার হয়ে চাকরি করা যায় তা অনেকেই google এ খুঁজতে থাকে। অনলাইন জগতে যতগুলো ওয়েবসাইট রয়েছে তার মধ্যে প্রায় 47% ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি করা। 

যেহেতু স্বল্প সময়ে অল্প খরচে ওয়ার্ড প্রেস সিএমএস প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে খুব সহজেই একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় সেই সাথে খুব সহজেই ব্যবহার করা যায় এ কারণে ওয়ার্ডপ্রেসের চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। 

শুধুমাত্র ফ্রিল্যান্সিং জগতেই নয় এটি কর্পোরেট বিজনেস সেক্টর গুলোতেও ব্যাপক পরিমাণে ব্যবহার হচ্ছে। ফলে একজন ফ্রিল্যান্সার কিংবা একজন ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার (WordPress Developer) ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট কাস্টমাইজেশন এর জন্য ক্লায়েন্টের চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন ধরনের থিম ও প্লাগইন তৈরি এবং গতানুগতিক ধারায় আপডেট করার কাজ করে থাকেন। 

যেহেতু সারাবিশ্বে ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করার প্রচলন প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে তাই এই সেক্টরে ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার এর চাহিদাও দিন দিন বৃদ্ধি পেয়েছে।

Table of Contents

ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার | WordPress Developer 2024

আপনি যদি প্রফেশনাল লেভেলে ওয়ার্ডপ্রেস থিমস এবং প্লাগিন ডিপ্লোমার করতে চান অথবা ওয়ার্ডপ্রেস কাস্টমাইজেশন করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে PHP জানতে হবে। কেননা PHP ল্যাঙ্গুয়েজ না জানলে আপনি কখনোই ওয়েব বিপ্লবের হতে পারবেন না। 

একজন প্রফেশনাল লেভেলে ওয়েব ডেভেলপার হতে গেলে আপনাকে অবশ্যই বিভিন্ন ওয়েব ল্যাঙ্গুয়েজ সম্পর্কে জানা থাকতে হবে যেমন ধরুন এইচটিএমএল সিএসএস জাভা স্ক্রিপ পিএইচপিইত্যাদি।

এ সকল ল্যাঙ্গুয়েজ সম্পর্কে যদি আপনি সঠিক জ্ঞান অর্জন করতে পারেন তাহলে আপনি নিজেই কোডিং করে যেকোনো ধরনের ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। 

ফ্রিল্যান্সিং পেশাতে সবচেয়ে ডিমান্ডেবল কাজ হচ্ছে ওয়েব ডেভলপার তাই আপনি যদি প্রফেশনাল লেভেলে ফ্রিল্যান্সিং করতে চান তাহলে ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার কোন বিকল্প নেই। কেননা বর্তমান সময়ে একজন ওয়েব ডেভেলপার ইন্টারনেট জগতে যতগুলো কাজ রয়েছে তার থেকে সবচেয়ে বেশি চাহিদা পূর্ণ।

যদি আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েব ডেভেলপার (WordPress Developer) হতে চান, তাহলে আপনাকে দুইটি ক্যাটাগরি বেছে নিতে হবে আর তা হল, ফ্রন্ট এন্ড ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার এবং ব্যাক-এন্ড ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার।

প্রশ্ন: ওয়ার্ডপ্রেস ব্যাক-এন্ড ডেভলপার এবং ওয়ার্ডপ্রেস ফন্ট এন্ড ডেভলপার কি এবং এগুলো কিভাবে কাজ করে?

উত্তর: ওয়ার্ডপ্রেস ব্যাক-এন্ড এবং ফন্ট ইন্ড ডেভলপার নিয়ে আমি আমার ইউটিউব চ্যানেলে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। যদি আপনি আমার ভিডিও না দেখে থাকেন তাহলে আজকের এই আর্টিকেলে সম্পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে পড়লে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ব্যাক এন্ড ডিপ্লোমার এবং ফ্রন্ট এন্ড ডিপ্লোমার সম্পর্কে সঠিক ধারণা পেয়ে যাবেন।

ফ্রন্ট এন্ড ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার 

আমরা দৈনন্দিন জীবনে ইন্টারনেটে বিভিন্ন ধরনের ওয়েবসাইট ভিজিট করি। সাধারণত ওয়েবসাইট ভিজিট করার সময় আমরা যে সকল ইন্টারফেস দেখতে পাই সেটি মূলত ফ্রন্ট এন্ড। আর এই অংশগুলো যে সকল ডেভলপার মডিফাইড কাস্টমাইজেশন এবং অপটিমাইজ করে তাকেই মূলত ফ্রন্ট এন্ড ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার বলা হয়।

ব্যাক-এন্ড ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার

ওয়েবসাইট পরিচালনা করার জন্য এডমিন অথবা ওয়েবসাইটের মালিকগণ তারা নিজেদের ওয়েবসাইটে অটোমেটিক কিছু প্রক্রিয়া বিভিন্ন ধরনের ফ্রিল্যান্সিং বা ওয়েব ডেভলপারদের কাছ থেকে কোডিংয়ের মাধ্যমে করিয়ে নেয়। ব্যাক-এন্ড হচ্ছে ওয়েবসাইটের ভিতরের অংশ যা সাধারণ ইউজার এটি দেখতে পারে না।

ধরুন একটি ক্যালকুলেটর, আপনি সেখানে বিভিন্ন সংখ্যা চেপে প্লাস মাইনাস অথবা ভাগ যোগ গুণ এসব করে থাকেন। যখন আপনি দুটি সংখ্যার যোগফল দেখতে পান সেটি হচ্ছে ফ্রন্ট এন্ড ইন্টারফেস এবং এই দুটি সংখ্যার যোগফল যেভাবে হয়েছে যে কোডিং এর মাধ্যমে হয়েছে সেটি হচ্ছে ব্যাক-এন্ড। 

আর যে ব্যক্তি এই কোডিংগুলো বা এই কমান্ডগুলো ব্যাক-এন্ড ড্যাশবোর্ডে লিখে রেখেছে তাকে বলা হয় ব্যাক-এন্ড ডেভলপার। আর যদি তা ওয়ার্ডপ্রেসের ডেভলপার হয়ে থাকে তাহলে সে ক্ষেত্রে তাকে বলা হবে ব্যাক-এন্ড ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার। 

ফ্রন্ট এন্ড ডেভেলপার কিভাবে হবেন

যদি আপনি প্রফেশনাল ফ্রন্ট এন্ড ওয়েব ডেভেলপার হতে চান তাহলে আপনাকে সর্বপ্রথম HTML, CSS, CSS3, বুটস্ট্র্যাপ-৪, JavaScript, জেকুয়েরি ইত্যাদি ল্যাংগুয়েজ খুব ভালোভাবে শিখতে হবে।

এরপর পিএসডি টু এইচটিএমএল কনভার্ট করা সম্পর্কে আপনাকে দক্ষতা অর্জন করতে হবে। পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়ার জন্য এবং একজন প্রফেশনাল মানের ওয়েব ডেভেলপার হতে চাইলে জাভাস্ক্রিপ্ট এর যেকোনো একটি ফ্রেমওয়ার্ক সম্পর্কে অত্যাধিক জ্ঞান অর্জন করতে হবে। 

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলোর চাহিদা অনুযায়ী বর্তমানে রিয়্যাক্ট , ভিউ জেএস, এংগুলার এর যেকোনো একটি গুরুত্ব সহকারে শিখে নিতে পারেন অথবা আপনি চাইলে আপনার যেটি পছন্দনীয় হয় চাইলে সেটিও শিখে নিতে পারবেন। 

এবং পরবর্তীতে আপনার দক্ষতা জাস্টিফাই করার জন্য জাভাস্ক্রিপ্ট এর ফ্রেমওয়ার্ক আয়ত্তে চলে আসলে আপনি পরীক্ষামূলকভাবে দু-চারটি প্রজেক্ট কমপ্লিট করুন। আর এজন্য আপনাকে প্যাথ ভার্সন কন্ট্রোল এবং সিকিউরিটি আপডেট ইসুকে শক্তিশালী করার জন্য আপনাকে গিট শিখতে হবে বাধ্যতামূলক। 

সেই সাথে যখন আপনি কোডিং করবেন আপনার সেই কোডিং এর মধ্যে স্প্রিড নিয়ে আসার জন্য অবশ্যই সিএসএস এর প্রি-প্রসেসর স্যাস বা লেস সম্পর্কের সঠিক জ্ঞান অর্জন করতে হবে।

ব্যাক-এন্ড ওয়েব ডেভেলপার কিভাবে হবেন

একজন প্রফেশনাল ব্যাক-এন্ড ডেভেলপার হতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই পিএইচপি, মাইএসকিউএল, এজাক্স, ওওপি সম্পর্কে অত্যাধিক দক্ষ হতে হবে। সেই সাথে জনপ্রিয় পিএইচপি ল্যাঙ্গুয়েজের এর যেকোনো একটি ফ্রেমওয়ার্ক সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করতে হবে। 

বর্তমান সময়ে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলোতে লারাভেল ফ্রেমওয়ার্ক এর মাধ্যমে যেকোনো ধরনের প্রজেক্ট ক্লাইন্টরা সম্পূর্ণ করার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছে। যেহেতু লারভেল ফ্রেমওয়ার্ক জনপ্রিয়তার তুঙ্গে উঠে গেছে তাই লারাভেল ফ্রেমওয়ার্ক শিখে নিতে পারেন। ‍

যদি আপনার লারবেল ফ্রেন্ড হওয়ার পছন্দ না হয় বা এটি ব্যবহার করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ না করেন তাহলে আপনি চাইলে যে কোন একটি ফেমওয়ার্ক শিখে নিতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে ব্যাকইন্ড ডেভেলপমেন্ট করার জন্য জাভাস্ক্রিপ্টব্যবহার করতে পারবেন। 

এগুলো করতে পারেন,

যদি আপনি জাভা স্ক্রিপ ব্যবহার করে ব্যাক এন্ড ওয়েব ডেভলপমেন্ট করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে জাভাস্ক্রিপ্ট কোডিং এর উপর দক্ষতা অর্জন করতে হবে। এরপর পর্যায়ক্রমে নোড জেএস ভালোভাবে শিখে নিতে হবে। আর সেই ব্যাক এন্ড ওয়েবসাইট ডাটাবেসের জন্য মাইএসকিউএল বা মংগোডিবি সম্পর্কে দক্ষ হতে হবে। পাশাপাশিঅব্যশই ওওপি সম্পর্কে সঠিক জ্ঞান অর্জন করতে হবে।

ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার কোথায় জব করেন?

দেখুন একজন প্রফেশনাল লেভেলের ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলভার এর চাকুরীর কোন অভাব নেই। যদি আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলভার প্রফেশনালি করে থাকেন তাহলে অনলাইন এবং অফলাইন উভয়ই আপনার কাজের জায়গা সৃষ্টি হবে।

বাংলাদেশসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের যুবক যুবতীরা ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলবার শিখে বিভিন্ন ধরনের কোম্পানি এবং অনলাইন জগতে অনেক সুন্দর একটি ক্যারিয়ার দাঁড় করছেন। তারপরও আমি আপনাদের দেখানোর চেষ্টা করছি একজন প্রফেশনাল ওয়ার্ডপ্রেস ডেকোভার কোথায় জব করেন তা নিচে তুলে ধরা হলো:

  • আইটি প্রতিষ্ঠানে-Wordpress Developer 2024
  • আউটসোর্সিং 
  • ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট কোম্পানিতে জব
  • সরকারি প্রতিষ্ঠান বা প্রজেক্টে
  • বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বা প্রজেক্টে (যেমন ব্যাংক গার্মেন্টস শিল্প ইত্যাদি প্রতিষ্ঠান)
  • মিডিয়া প্রতিষ্ঠান (যেমন: টিভি চ্যানেল কিংবা নিউজ পত্রিকা)

ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার এর কাজ কি?

একজন প্রফেশনাল ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপারের ক্লায়েন্টের বিভিন্ন চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন ধরনের কাজ করতে হয়। এই সেক্টরে কাজের কোন শেষ নেই সময় এবং যুগের পরিবর্তে বিভিন্ন চাহিদার উৎপত্তি হয়ে থাকে তাই বিভিন্ন ধরনের কাজের সুযোগ তৈরি হয়।

কিছু কম্পালসারি কাজ তুলে ধরা হলো যা ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলভাররা করে থাকে:

  • ক্লায়েন্টের চাহিদা বা প্রজেক্ট সম্পর্কে পুঙ্খানুপুঙ্খানু ভাবে জেনে নেয়া এবং প্রজেক্ট কমপ্লিট না হওয়া পর্যন্ত ক্লাইন্টের সাথে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে যোগাযোগ করা।
  • ওয়েবপেইজ/ওয়েবসাইট/অ্যাপ্লিকেশন/প্ল্যাটফর্ম যাই বলুন না কেন সেটির প্রাথমিক ইন্টারফেস অথবা লেআউট তৈরির ব্যাপারে কাজের সুবিধার্থে বিভিন্ন ধরনের ওয়েব ডিজাইনারের সাথে বৈঠক বা আলোচনা করা। (যদি আপনি একাই সবকিছু হ্যান্ডেল করতে পারেন তাহলে সে ক্ষেত্রে কারো সাথে যোগাযোগ করার প্রয়োজন নেই)।
  • ওয়েবসাইট বা যে প্রজেক্ট নিয়েছেন সেই প্রজেক্ট এর কাস্টম ডিজাইনের ভিত্তিতে ওয়ার্ডপ্রেস থিম বা প্লাগইনের প্রাইমারি ভার্সন তৈরি করা।
  • ওয়ার্ডপ্রেস থিম বা প্লাগইনের কার্যক্ষম বিভিন্ন ডিভাইস অর্থাৎ মোবাইল কম্পিউটার ল্যাপটপ সম্বলিত বিভিন্ন ওয়েব ব্রাউজারে পরীক্ষা নিরীক্ষ করা।
  • কাস্টমাইজেশনকৃত ওয়ার্ডপ্রেস থিম বা প্লাগইনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা হয়ে গেলে তা ফাইনাল ভার্সন পাবলিশ করা।
  • নিয়মিত সেই সকল থিম বা প্লাগইন ওয়ার্ডপ্রেস ভার্সন এবং সিকিউরিটি অনুযায়ী আপডেট করা।
  • আপনি যে প্রজেক্ট নিয়েছেন তা শেষ হলে ক্লাইন্টকে সঠিকভাবে প্রজেক্ট বুঝিয়ে দেওয়া বা হস্তান্তর করা।
  • একজন ডেভলপার ক্লাইন্টকে সার্ভিস দেবার পরবর্তী সময়েও যেকোনো টেকনিক্যাল সহায়তা করে থাকে যদি প্রজেক্ট নেয়ার সময় সেরকম কোন শর্ত গ্রহণ করেন তাহলে তা সঠিকভাবে প্রদান করা।

ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপারের চাহিদা কেমন | WordPress Developer 2024

বর্তমান সময়ে প্রযুক্তিগত এই পৃথিবীতে প্রত্যেক কোম্পানি অথবা প্রত্যেক ফ্রিল্যান্সার অথবা প্রত্যেক ব্যক্তির জন্য একটি ওয়েবসাইট যেন অতিভব প্রয়োজনীয় একটি বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

আপনি জেনে অবাক হবেন পৃথিবীতে এখন পর্যন্ত যতগুলো ওয়েবসাইট রয়েছে তার ৪৩ শতাংশ তৈরি হয়েছে ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে। আর এজন্য একজন ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার এর চাহিদা দিন দিন প্রচুর পরিমাণে বৃদ্ধি পাচ্ছে। আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার শিখতে পারেন বা হতে পারেন তাহলে অনায়াসে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস সহ অফলাইন এবং অনলাইনে সুন্দর ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন।

দৈনন্দিন জীবনে নতুন যে কোন একটি স্টার্টআপ কোম্পানি তৈরি হচ্ছে এবং সেই কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠানে চাহিদা পূরণ করতে বিভিন্ন ধরনের ওয়ার্ডপ্রেস থিমস এবং প্লাগিং এর উদ্ভাবন হচ্ছে। উইকিপিডিয়ার তথ্য মধ্যে একটি পরিসংখ্যানে দেখা যায় যতগুলো ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট মানুষ তৈরি করেছে তার মধ্যে ৪০ শতাংশ কাস্টমাইজেশন থিমস এবং প্লাগিন ব্যবহার করেছে। 

যদি আপনি সুন্দর এবং লাইট ওয়েট একটি ওয়ার্ডপ্রেস থিম তৈরি করতে পারেন তাহলে সেটি প্রফেশনাল মার্কেটপ্লেসে বিক্রি করার সুযোগ রয়েছে। সাধারণ পরিসংখ্যায় উঠে এসেছে ঘরে প্রায় প্রতিদিন এক লক্ষ ওয়েবসাইট অথবা মার্কেটপ্লেস তৈরি হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস কে কেন্দ্র করে। এর মধ্যে যেহেতু চল্লিশ শতাংশ মানুষ প্রেমিয়াম এবং কাস্টমাইজেশন ওয়ার্ডপ্রেস থিমস এবং প্লাগিন ব্যবহার করছে সেহেতু এখানে আপনার ক্যারিয়ার দাঁড় করানো সম্ভব। 

শুধু তাই নয় আপনি যদি একজন প্রফেশনাল লেভেলের ওয়ার্ডপ্রেস কাস্টমাইজেশন করতে পারেন এবং যদি আপনি প্রফেশনাল লেভেলে ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার হতে পারেন তবে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলোতেও আপনার চাহিদা রয়েছে।

আর্টিকেলের এই সেকশন পড়ে অবশ্যই আপনি বুঝতে পেরেছেন একজন প্রফেশনাল লেভেলের ওয়ার্ডপ্রেস ডেভল্ভারের চাহিদা অনলাইন এবং অফলাইন মার্কেটে ব্যাপক রয়েছে।

ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট কোথায় শিখবেন?

যেকোনো কিছু শুরু করা বা যেকোনো কিছু তৈরি করার জন্য মনবল এবং ইচ্ছাশক্তি থাকা আবশ্যক। এরপর আপনি যে বিষয়ে শুরু করতে চান বা যে বিষয়ে শিক্ষা অর্জন করতে চান তার জন্য প্রয়োজন একজন সুশিক্ষিত মানুষ কিংবা একটি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান।

এর পাশাপাশি প্রয়োজন হবে গুগল মামার। অর্থাৎ আপনি যে প্রতিষ্ঠান থেকেই ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট শিখন না কেন আপনাকে অবশ্যই ইউটিউব এবং google এ বিভিন্ন বিষয়ে সার্চ করে তার সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করতে হবে। যেকোনো প্রতিষ্ঠান থেকে শিক্ষা নেয়ার পাশাপাশি বাসায় অথবা আপনার অফিসে অথবা আপনি ফ্রি সময় যেখানে থাকেন সেখানেই আপনাকে ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপারের জন্য প্র্যাকটিস করতে হবে।

তবে আমি আমার পার্সোনাল এক্সপেরিয়েন্স থেকে আপনাদের বলছি আপনি যে কোন ট্রেনিং সেন্টার থেকে ওয়েব ডেভলপমেন্ট শেখার পাশাপাশি গুগল এবং ইউটিউবকে কাজে লাগিয়ে আরো অধিক লক্ষ হতে পারেন।

এর পরও আমি ফ্রি কিছু রিসোর্স আপনাদের সাথে শেয়ার করছি যে রিসোর্সগুলো ব্যবহার করে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট শিখতে পারবেন। ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট শেখার জন্য এবং ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার হওয়ার জন্য নিচে কিছু রিসোর্স তুলে ধরা হলো:

ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট শেখার জন্য কিছু ফ্রি রিসোর্স:

  1. https://wpapprentice.com
  2. https://codex.wordpress.org
  3. https://wpbeginner.com

আমি আবারও বলছি ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার হওয়ার জন্য অনেকগুলো ক্যাটাগরি রয়েছে। আপনার যে ক্যাটাগরি আপনার ভালো লাগে আপনি সেটি নির্বাচন করতে পারেন। এই বিষয়টি নির্ভর করবে কেবলমাত্র ব্যক্তির উপর যে তিনি কোন উদ্দেশ্যে ওয়ার্ডপ্রেস শিখতে চাচ্ছেন। 

অর্থাৎ যদি কেউ কেবলমাত্র লেখালেখি বা ব্লগিং করার উদ্দেশ্যে ওয়ার্ডপ্রেস শিখতে চায় তাহলে তাকে ওয়ার্ডপ্রেস এর ব্যাসিক কিছু বিষয়বস্তু জানলেই হবে এবং অন্যথায় যদি কেউ ওয়ার্ডপ্রেস শিখে ভালো মানের ওয়েব ডিজাইনার অথবা ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার হতে চায় তাহলে তাকে ওয়ার্ডপ্রেস সম্পর্কে অত্যাধিক জ্ঞান অর্জন করতে হবে।

shobarjobs.com
shobarjobs.com

ওয়ার্ডপ্রেস শেখার প্রাইমারি লেভেল

যদি আপনি কোন বিষয় সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করতে চান অর্থাৎ যদি কিছু শিখতে চান তাহলে আপনাকে শুরু থেকে এডভান্স লেভেল পর্যন্ত শিখতে একটি প্রাইমারি স্টেপ পার করতে হয়। তাই একজন প্রফেশনাল ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার হবার বা ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট শেখার জন্য যে সকল প্রাইমারি স্টেপ রয়েছে সে সকল বিষয় নিয়ে আর্টিকেলের এই সেকশনে আলোচনা করেছি।

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ব্লগিং

আপনি যদি একটি ব্লগিং সাইট তৈরি করতে চান তাহলে আপনার জন্য বেটার হবে ওয়ার্ডপ্রেস। সিএসএস এইচটিএমএল জাভা স্ক্রিপ্ট এগুলোর বিষয়ে সাধারণ কিছু নলেজ থাকলেই এবং এর ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড ম্যানেজমেন্ট শিখে নিলেই ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে প্রফেশনাল লেভেলে একটি ব্লগসাইট তৈরি করতে পারবেন। এমন কি সেই ব্লগ সাইটে google এডসেন্স নিয়ে অথবা অন্য কোন থার্ড পার্টি এন্ড নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে প্রতি মাসে কয়েকশো থেকে কয়েক হাজার ডলার উপার্জন করতে পারবেন। 

ফ্রন্ট এন্ড ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্ট

আমি প্রথমেই আপনাকে বলেছি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট কে কেন্দ্র করে ফ্রন্ট এন্ড ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট শিখতে চাইলে অবশ্যই HTML, CSS, JavaScript, jQuery, PHP, MySQL পরিপূর্ণ জ্ঞান অর্জন করতে হবে এবং এর পাশাপাশি ওয়ার্ডপ্রেস এর সম্পূর্ণ ডকুমেন্টেশন অনুসরণ অনুসরণ করে কোডিং লেখার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

ওয়ার্ডপ্রেস থিম ডেভলপমেন্ট: বন্ধুগণ! ব্লগিং এবং ফ্রন্ট এন্ড ওয়েবসাইট ডেভলপমেন্টের পাশাপাশি ওয়ার্ডপ্রেসের আরও একটি জনপ্রিয় এবং লাভজন পেশাগত দিক হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস এর প্রেমিয়াম থিম ডেভেলপমেন্ট।

সে ক্ষেত্রে একজন প্রফেশনাল ওয়ার্ডপ্রেস কাস্টম থিম ডেভেলপার হতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে ফ্রন্ট এন্ড ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট এর  পাশাপাশি ওয়ার্ডপ্রেস এর থিম ডেভলপমেন্ট গাইড অনুসরণ করে ওয়ার্ডপ্রেস থিম ডেভেলপমেন্ট করতে হবে।

ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন ডেলপমেন্ট

ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন ডেভলপমেন্ট ওয়ার্ডপ্রেসের আরও একটি অত্যন্ত লাভজনক এবং জনপ্রিয় জব। এটি মূলত ব্যাক এন্ড ডেভলপমেন্ট ক্ষেত্র বেশি কাজে লাগে। একজন প্রফেশনাল লেভেলে ওয়ার্ডপ্রেস ব্ল্যাক এন্ড বিপ্লবের হতে হলে উপরের সকল বিষয় সম্পর্কে আপনাকে সঠিক জ্ঞান অর্জন করার পাশাপাশি ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন ডেভেলপমেন্ট এর রুলস সম্পর্কে জানতে হবে।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: আপনি চাইলে ঘরে বসে নিজে থেকে ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্টের মূল বিষয়গুলো শিখতে পারবেন ওয়ার্ডপ্রেসের অফিশিয়াল কোডেক্সে থেকে।

ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার হতে কি কি যোগ্যতা প্রয়োজন?

দেখুন ফ্রিল্যান্সিং যেহেতু স্বাধীন পেশা তাই একজন ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার হিসেবে ক্যারিয়ার গঠন করতে হলে এখানে শিক্ষাগত যোগ্যতার কোন বিধি-বিধান নেই। তবে যদি আপনার কম্পিউটার সায়েন্স/ইঞ্জিনিয়ারিং বা ইনফরমেশন টেকনোলজিতে শিক্ষাগত জ্ঞান অর্জন অথবা ডিগ্রি থাকে তবে তা আপনাকে অনেক সহায়তা করবে।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: একজন ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার হিসেবে ক্যারিয়ার গঠন করতে চাইলে প্রাতিষ্ঠানিক যোগ্যতা থাকুক বা না থাকুক, প্রাকটিক্যাল কাজের অভিজ্ঞতা অর্জন করলেই এ সেক্টরে আপনার গ্রহণযোগ্যতা অনেকাংশে বেড়ে যাবে।

তবে একদম আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতা নেই তাহলে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট করতে পারবেন না কারণ এখানে পড়াশোনা জানার দরকার আছে। আপনি অবশ্যই বেসিক ব্যাপারটা বোঝেন আসলে নিরক্ষর মানুষ কখনো এগুলো কাজ করতে পারবে না। আমি কি বুঝাতে চেয়েছি অবশ্যই আপনি বুঝতে পেরেছেন।

প্রফেশনাল ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপারের কী ধরনের দক্ষতা থাকতে হয় ?

আপনি যখন ক্লায়েন্টের কাজ থেকে কোন প্রজেক্ট নিবেন তখন সেই প্রজেক্টের উপর নির্ভর করবে আপনার কতটুকু দক্ষতা প্রয়োজন। অর্থাৎ এক এক কাজের জন্য এক এক ধরনের যোগ্যতার প্রয়োজন হয়। তবুও একজন প্রফেশনাল ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপারের যে দক্ষতা গুলো না থাকলেই নয় সে বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করা হলো:

  • ফ্রন্ট-এন্ড কোডিং স্কিল থাকতে হবে: যেমন, HTML, CSS, JavaScript, jQuery ইত্যাদি।
  • ব্যাক-এন্ড কোডিং স্কিল জানতে হবে: অর্থাৎ PHP ল্যাংগুয়েজ সম্পর্কে আপনাকে শিক্ষা অর্জন করতে হবে। 
  • ডাটাবেইজ ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম: MySQL ডাটাবেজ সম্পর্কে জানতে হবে।
  • সিকিউরিটি: শুধু প্রজেক্ট কমপ্লিট করলেই হবে না প্রজেক্ট এর সাইবার সিকিউরিটি এবং নিরাপত্তা জনিত সকল বিষয় সম্পর্কে জানতে হবে।
  • গিটহাব: (GitHub) গিটহাব সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করতে হবে।
  • এবং পরিশেষে অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিং ইন্টারফেস (API): REST API সম্পর্কে সঠিক ধারণা এবং এর সঠিক ব্যবহার জানতে হবে। 

প্রফেশনাল ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপারের মাসিক ইনকাম কত?

আমার দেখা মতে বাংলাদেশে এমনও ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার রয়েছে যারা ফাইবার আপওয়ার্ক সহ ফ্রিল্যান্সার মার্কেটপ্লেস গুলোতে প্রতি ঘন্টায় মিনিমাম ৫০ থেকে ১০০ ডলার পর্যন্ত আয় করে থাকে। তবে সাধারণত একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভলপার কিংবা ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার প্রতি ঘন্টায় সর্বনিম্ন বিশ থেকে ৫০ ডলার পর্যন্ত নিয়ে থাকেন।

ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট

অর্থাৎ যদি কোনো ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েব ডেভলপার সারা দিনে সর্বনিম্ন ৭ থেকে ৮ ঘন্টা কাজ করে তাহলে প্রতি মাসে প্রায় ২০ থেকে ৩০ হাজার ডলার পর্যন্ত উপার্জন করতে সক্ষমান। আমার এক ছোট ভাই ক্রিয়েটিভ আইডি থেকে ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট শিখে সে প্রতি মাসে ৫০ থেকে ৭০ হাজার টাকার মত প্রাইমারি লেভেলে থাকা অবস্থায় ইনকাম করছে।

ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার অনলাইন ক্যারিয়ার। 

দৈনন্দিন জীবনে যেহেতু মানুষ এখন অনলাইনের প্রতি নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে তাই আপনি যদি প্রফেশনাল মানের একজন ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার হতে পারেন তাহলে অনলাইন ক্যারিয়ার ধার করাতে এটি কেবলমাত্র সর্বোচ্চ ভূমিকা পালন করবে।

কেননা আমি পূর্বেই আপনাকে বলেছি পৃথিবীতে যতগুলো ওয়েবসাইট রয়েছে এবং দৈনন্দিন জীবনে প্রত্যেকটা দিন ১ লক্ষ থেকে দেড় লক্ষ নতুন ওয়েবসাইট তৈরি হচ্ছে সে সকল ওয়েবসাইটের প্রায় ৪৩ শতাংশ ওয়াডপ্রেস দিয়ে তৈরি।

তাই এ সেক্টরে ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার হিসেবে কাজ করলে আপনি রাতারাতি কোটিপতি না বনে যেতে পারলেও আপনার ফিউচার অত্যাধিক সুন্দর হবে এটিই স্বাভাবিক। ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট শিখে এই সেক্টরের ধৈর্য এবং সময় দিতে পারলে আপনি অনলাইনে ক্যারিয়ার দাঁড় করাতে পারবেন।

ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার অফলাইন ক্যারিয়ার

বন্ধুগণ আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট শিখে অনলাইনে আপনার প্রোডাক্টগুলো সেল দেয়ার পাশাপাশি অথবা ক্লায়েন্টের প্রজেক্ট কমপ্লিট করার পাশাপাশি আপনি চাইলে ফিজিক্যালি অফলাইনেও এর ব্যবহার করতে পারবেন। 

অর্থাৎ আমাদের দেশ সহ পৃথিবীর বিভিন্ন কোম্পানি রয়েছে যারা ভালো মানের ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার হায়ার করে আজীবনের জন্য তাদের কোম্পানিতে চাকরির অফার করে থাকে। 

এর মধ্যে বিভিন্ন ধরনের মিডিয়া কোম্পানি যেমন টেলিভিশন মিডিয়া অনলাইন পত্রিকা এবং গার্মেন্টস শিল্প সেইসাথে প্রাইভেট সেক্টরে আরো নানা ধরনের অপরচুনিটি রয়েছে একজন ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপারের।

তাই আপনি চাইলে অনলাইন এর পাশাপাশি অফলাইনেও আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট সার্ভিস দিয়ে প্রতি মাসে লক্ষ থেকে কোটি টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন।

Homepage shobarjobs.com
Category Technology
Last Update Just Now
Written by Ashraful Islam

উপসংহার

বন্ধুগণ আজকের এই আর্টিকেলে একজন ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার হয়ে কিভাবে ক্যারিয়ার দাঁড় করতে পারবেন এবং ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপয়েন্ট করে কিভাবে প্রতি মাসে কয়েকশো থেকে কয়েক হাজার ডলার আয় করতে পারবেন সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। 

ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপার এবং ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট সম্পর্কে যদি আপনার আরো প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে আপনি অবশ্যই কমেন্ট সেকশনে তা জানাতে ভুলবেন না।

বন্ধুগণ অনেক সময় এবং রিসোর্স ব্যবহার করার মাধ্যমে ডেভলপার এবং ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট শিখতে যারা আগ্রহী তাদের জন্য আজকের এই আর্টিকেলটি লিখেছি, তাই যদি আর্টিকেলটি ভালো লেগে থাকে তাহলে কমেন্ট সেকশনে আপনার মন্তব্য জানাবেন এবং আর্টিকেল দিয়ে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Updated

Recent