HomeVisaইতালি স্পন্সর ভিসা আবেদন ২০২৪, ইতালি স্পন্সর ভিসা কি

ইতালি স্পন্সর ভিসা আবেদন ২০২৪, ইতালি স্পন্সর ভিসা কি

5/5 - (116 votes)

সকল ভিসা প্রত্যাশী নাগরিকদের জানানো যাচ্ছে যে বর্তমান সময়ে ইতালি স্পন্সর ভিসা এবং সিজনাল ভিসার নতুন গেজেট ঘোষণা করা হয়েছে। অনলাইনে ইতালি স্পন্সর ভিসা ২০২৪ আবেদন এর জন্য শুধুমাত্র বাংলাদেশ অভিবাসী কর্মীরা অগ্রাধিকার পাবেন। উল্লেখিত গেজেটের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে এই সকল অভিবাসন প্রত্যাশী নাগরিকগণ অন্যান্য প্রবাসীদের তুলনায় বেশি সুযোগ-সুবিধা পাবেন।

সাম্প্রতিক একটি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে ইতালি শ্রম ও সামাজিক পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের আওতায় সর্বমোট ২৬,০০০ শ্রমিক ইতালি স্পন্সর ভিসা ২০২৪ আবেদনের মাধ্যমে নেবে। 

ইতালি স্পন্সর ভিসা কি?

দেশের আইন ভঙ্গ করে চুপি চুপি অথবা পালিয়ে যাওয়া ছাড়া কোন রকমের ঝুঁকি ব্যতীত বৈধ ভিসার মাধ্যমে ইতালিতে প্রবেশ করার যে প্রক্রিয়া তাকেই স্পন্সর ভিসা বলা হয়। 

ইতালি সরকার প্রতিবছর ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু করে মার্চ মাস পর্যন্ত স্পন্সর ভিসার মাধ্যমে কর্মী নিয়োগ প্রদান করে। এরপর বিভিন্ন দেশের সরকারি প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে উক্ত বিজ্ঞপ্তি গুলো নিজ নিজ দেশে প্রকাশ করে থাকে।

যারা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে ইতালিতে বৈধভাবে কাজ করতে চায় তাদের জন্য ইতালি স্পন্সর ভিসা কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ। 

বিশেষ দ্রষ্টব্য: কেউ যদি ইতালিতে কাজ করার জন্য যেতে চায় তাহলে তাকে অবশ্যই ইতালি স্পন্সর ভিসা এবং সিজনাল বা নন সিজনাল ভিসা নিয়ে ইতালিতে বৈধভাবে প্রবেশ করতে হবে।

কি কি ভিসায় শ্রমিক নেবে ইতালি?

ইতালি শ্রম ও সামাজিক পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে একাধিক কাজের জন্য বহু সংখ্যক ভিসায় লোক নিয়োগ দেবে তারা। বলে রাখা ভালো যে, বর্তমানে ইতালিতে বিপুল পরিমাণ কর্মী সংকট দেখা দিয়েছে। তাই তারা নিম্নোক্ত ক্যাটাগরি ছাড়াও আরো বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে জনবল নিয়োগ দিবে যে সকল ক্যাটাগরিতে এখনো অনেক পদ সংখ্যা বাকি রয়েছে। তবে 2023 সালের পরে নতুনভাবে ২০২৪ সালে ইতালি স্পন্সর ভিসার মাধ্যমে আরো নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পাবলিশ করবে বলে জানিয়েছে। যে সকল পেশায় ইতালি স্পন্সর ভিসা মিলবে তা নিচে তুলে ধরা হলো: 

  • ড্রাইভিং
  • হোটেল বা রেস্টুরেন্ট
  • রাস্তা মেরামত
  • রাজমিস্ত্রি
  • ইলেকট্রিশিয়ান
  • সিকিউরিটি গার
  • কৃষি কাজ
  • পাইপ লাইনের কাজ
  • অ্যালুমিনিয়াম ফ্যাক্টরিতে কাজ ইত্যাদি।

ইতালি স্পন্সর ভিসা খরচ কত

অন্যান্য ভিসা প্রসেসিং এর তুলনায় ইতালি স্পন্সর ভিসার খরচ অনেক কম। সাধারণত ইতালি স্পন্সর ভিসার খরচ সরকারিভাবে ৩-৪ লাখ টাকা এবং কিছু ক্ষেত্রে কম বেশি হতে পারে। তবে আপনি যদি অলরেডি কোন দেশে অবস্থান করে থাকেন অর্থাৎ আপনি প্রবাসী তাহলে আপনার জন্য তিন লাখ টাকার মত প্রয়োজন হতে পারে। 

উল্লেখ্য যে, সৌদি আরব, ওমান, কাতার, দুবাই সিঙ্গাপুরসহ অন্যান্য দেশ থেকেও ইতালিতে স্পন্সর ভিসা আবেদন করে সম্পূর্ণ প্রশাসন কমপ্লিট হয়ে গেলে বৈধভাবে ইতালিতে যেতে পারবেন।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: আপনি যে দেশ থেকে ইতালি স্পন্সর ভিসা আবেদন করতে চান সেই দেশের ভিসা রিকোয়ারমেন্ট অনুযায়ী স্পন্সর ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। যদি কোন কারনে স্পন্সর ভিসা না পান তাহলে বিভিন্ন এজেন্সির মাধ্যমে ইতালিতে প্রবেশ করতে পারবেন তবে সে ক্ষেত্রে আপনার খরচা অনেক বেশি হবে।

কেন স্পনসর ভিসার মাধ্যমে ইতালি যাবেন

ইতালিতে সরাসরি আইনি প্রবেশ একটি ‘ইতালি স্পন্সর ভিসার’ মাধ্যমে সম্ভব এবং পছন্দ অনুযায়ী কর্মসংস্থানের সুযোগ পাওয়া যায়। তবে সুসংবাদ হল যে একজন ব্যক্তি যিনি ইতালি স্পন্সর ভিসায় ইতালিতে প্রবেশ করে তার বেতন, থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা এবং অন্যান্য সুবিধা অন্যান্য ভিসায় থাকা কর্মীদের তুলনায় অনেকাংশে বেশি।

যদি স্পনসর ভিসা নিয়ে ইতালিতে থাকেন, তাহলে পরবর্তীতে ভিসা নবায়ন বা রিনিউ করার সুযোগ রয়েছে এবং কেউ চাইলে পরবর্তীতে ওয়ার্ক পারমিট ভিসা সংগ্রহ করে ইতালিতে প্রবেশ করতে পারবেন। এক্ষেত্রে নতুন করে ভিসা প্রসেসিং এবং কাগজপত্র করতে কঠিন কোন কাজ বা পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে না। এমনকি যে কোম্পানিতে কাজ করেছিলেন সে কোম্পানি ছাড়াও আরো বিভিন্ন ধরনের এজেন্সি এবং কোম্পানি ব্যক্তিকে ফোন করে কাজের জন্য অফার করবে।

আরো পড়ুন: 

ইতালি স্পন্সর ভিসা ২০২৪ আবেদন

আর্টিকেলের শুরুর দিকে বলেছি প্রতিবছর ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু করে মার্চ মাস পর্যন্ত ইতালি স্পন্সর ভিসা আবেদন শুরু হয়। 

বিশেষ দ্রষ্টব্য: ইতালি স্পন্সর ভিসা আবেদন কেবলমাত্র সরকারি প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনেই করতে পারবেন। কোন এজেন্সি বা বেসরকারি সংস্থার মাধ্যমে ইতালি স্পন্সর ভিসা আবেদন করতে পারবেন না।

ড্রাইভিং, হোটেল বা রেস্টুরেন্ট, রাস্তা মেরামত, রাজমিস্ত্রি, ইলেকট্রিশিয়ান, সিকিউরিটি গার, কৃষি কাজ, পাইপ লাইনের কাজ, অ্যালুমিনিয়াম ফ্যাক্টরিতে কাজ, ও মৌসুমী স্পন্সর ভিসার মাধ্যমে ফেব্রুয়ারি মাস থেকে আবেদন করতে পারবেন। এর জন্য বাংলাদেশের সরকারি প্রতিষ্ঠান বিএমইটি, এবং বোয়েসেল এর মাধ্যমে সরকারি ভাবে স্পন্সর ভিসা আবেদন করতে পারবেন।

সাধারণত যে কোন ধরনের ভিসার মাধ্যমে যখন প্রবাসে কর্মী নিয়োগ দেয়া হয় সঙ্গে সঙ্গে আমি আমার এই ওয়েবসাইটে সেগুলোর সঠিক তথ্য বিভিন্ন ধরনের গুরুত্বপূর্ণ ইনফরমেশন আপডেট দিয়ে থাকি। তবে আমার জানামতে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হবার সঙ্গে সঙ্গে বেসরকারি যে সমস্ত এজেন্সি রয়েছে সে সমস্ত এজেন্সিগুলো  ইতালিতে স্পন্সর ভিসা আবেদন তারা গ্রহণ করে না। 

তবে অনেক ধুরতো বাজ চালাক চতুর ব্যক্তির রয়েছে, যারা আবেদন গ্রহণ করে এবং লোভ দেখিয়ে টাকার বিনিময়ে অন্য উপায়ে আপনাকে ইতালিতে প্রবেশ করানোর চেষ্টা করবে। তবে এটি কিন্তু একেবারে অবৈধ পদ্ধতি। আর আপনি অবশ্যই জানেন অবৈধভাবে ইতালিতে প্রবেশ করলে আপনার কি হাল হতে পারে।

শুধু ইতালি নয় আপনি যদি প্রবাসে যেতে চান তাহলে যে কোন দেশে অবৈধভাবে গেলে আপনার পরিণতি ভয়াব হবে। তাই টাকা বাঁচানোর জন্য অথবা লোভে পড়ে কখনোই অসদ উপায় অবলম্বন করে প্রবাসে যাবেন না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Updated

Recent